Blog

স্বাধীন-বাংলাদেশের-অভ্যুদয়ের-ইতিহাস সংক্ষিপ্ত প্রশ্ন ও উত্তর

স্বাধীন-বাংলাদেশের-অভ্যুদয়ের-ইতিহাস সংক্ষিপ্ত প্রশ্ন ও উত্তর: এখানে স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয়ের ইতিহাস বিষয়ের প্রথম অধ্যায় অর্থাৎ ‘দেশ ও জনগোষ্ঠীর পরিচয়’ হতে গুরুত্বপূর্ণ সংক্ষিপ্ত প্রশ্ন এবং উত্তর দেওয়া হল। এগুলো অনার্স এবং ডিগ্রির জন্য অত্যাবশ্যক। এই সাইটে ধারাবাহিক ভাবে একের পর এক অধ্যায় যুক্ত থাকবে।

স্বাধীন-বাংলাদেশের-অভ্যুদয়ের-ইতিহাস সংক্ষিপ্ত প্রশ্ন ও উত্তর

প্রশ্নঃ বাংলাদেশের আয়তন কত?

উত্তর : বাংলাদেশের আয়তন ১,৪৭,৫৭০ বর্গ কি.মি.।

প্রশ্নঃ ভূ-প্রাকৃতিক বৈশিষ্ট্য অনুসারে বাংলাদেশকে কতটি ভাগে ভাগ করা যায়?
অথবা, ভূ-প্রকৃতি অনুসারে বাংলাদেশকে কয় ভাগে ভাগ করা যায়?
উত্তরঃ ভূ-প্রকৃতিগত বৈশিষ্ট্য অনুযায়ী বাংলাদেশকে তিন ভাগে ভাগ করা যায়।

প্রশ্নঃ বাংলাদেশের বৃহত্তম পাহাড় ও উচ্চতম বা সর্বোচ্চ পর্বতশৃঙ্গ কোনটি?
অথবা, বাংলাদেশের সবচেয়ে উঁচু পর্বতশৃঙ্গের নাম কি?
উত্তরঃ বাংলাদেশের বৃহত্তম পাহাড় হলো গারো পাহাড়, ময়মনসিংহ জেলায় অবস্থিত এবং উচ্চতম বা সর্বোচ্চ
পর্বতশৃঙ্গ তাজিং ডং যার অপর নাম বিজয় বা মদক মুয়াল; বান্দরবান জেলার রুমায় অবস্থিত।

প্রশ্নঃ কোন প্রাচীন গ্রন্থে বাংলার নাম পাওয়া যায়?
অথবা, সর্বপ্রথম কোন গ্রন্থে বঙ্গ নামের উল্লেখ পাওয়া যায়?
অথবা, কোন প্রাচীন গ্রন্থে ‘বঙ্গ’ নামের উল্লেখ পাওয়া যায়?
উত্তরঃ বৈদিক সাহিত্য ‘ঋগ্বেদের’ ঐতরেয় আরণ্যক’ গ্রন্থে পাওয়া যায়।

প্রশ্নঃ জনপদ কী?
উত্তরঃ প্রাচীনকালে সমগ্র ভূখণ্ড ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র অংশে বিভক্ত ছিল। বিভিন্ন জনগোষ্ঠীর নামানুসারের এগুলো জনপদ হিসেবে গড়ে উঠে।

প্রশ্নঃ প্রাচীন বাংলার কোনো জনপদের নাম থেকে ‘বাংলাদেশ’ নাম হয়েছে?
উত্তরঃ বঙ্গ ও বাঙাল জনপদ থেকে।

প্রশ্নঃ আকবরের শাসনামলে বাংলা কি নামে অভিহিত হতো?
উত্তরঃ সুবা-ই-বাংলা নামে অভিহিত হতো।

প্রশ্নঃ আইন-ই-আকবরী গ্রন্থটির রচয়িতা কে?
উত্তরঃ আইন-ই-আকবরী গ্রন্থটির রচয়িতা আবুল ফজল।

প্রশ্নঃ পৃথিবীর বৃহত্তম ব-দ্বীপ কোনটি?
উত্তরঃ পৃথিবীর বৃহত্তম ব-দ্বীপ হলো বাংলাদেশ।

প্রশ্নঃ বাংলাদেশের আদি জনপদের অধিবাসীরা কোন জাতির অন্তর্ভুক্ত?
উত্তরঃ অস্ট্রালয়েড বা অস্ট্রিক।

দেশ ও জনগোষ্ঠীর পরিচয় হতে আরো কিছু প্রশ্ন

প্রশ্নঃ সংকর জাতি কাকে বলে?
উত্তরঃ বিভিন্ন নরগোষ্ঠীর সমন্বয়ে গঠিত মানব জাতিকে সংকর জাতি বলে।

প্রশ্নঃ বাংলার জনপদগুলো নাম লিখ।
অথবা, প্রাচীন বাংলার কয়েকটি জনপদের নাম লিখ।
উত্তরঃ বঙ্গ, পুণ্ড্র, সুহ্ম বা রাঢ়, গৌড়, সমতট, বরেন্দ্র, হরিকেল ইত্যাদি।

প্রশ্নঃ পুণ্ড্র কী?
উত্তরঃ বাংলার একটি প্রাচীন জনপদ।

প্রশ্নঃ বাংলাদেশের আদি জনপদের অধিবাসীরা কোন জাতিরঅন্তর্ভুক্ত?
উত্তরঃ পৃথিবীর বৃহত্তম ব-দ্বীপ হলো- বাংলাদেশ।

প্রশ্নঃ বাংলাদেশের দীর্ঘতম নদীর নাম কী?
উত্তরঃ বাংলাদেশের দীর্ঘতম নদীর নাম মেঘনা (দৈর্ঘ্য ৬৬৯ কি. মি.)।

প্রশ্নঃ বাঙালিদের উপর কোন নরগোষ্ঠীর প্রভাব সবচেয়ে বেশি?
উত্তরঃ অস্ট্রিক নরগোষ্ঠীর।

প্রশ্নঃ “বাংলার ইতিহাস রচনা করেছে বাংলার নদনদী” -উক্তিটি কার?
উত্তরঃ নীহার রঞ্জন রায়।

প্রশ্নঃ পদ্মা নদী কোথায় মেঘনার সাথে মিলিত হয়েছে?
উত্তরঃ চাঁদপুরে ।

প্রশ্নঃ বাংলা সাহিত্যের প্রাচীন নিদর্শন কোনটি?
অথবা, বাংলা ভাষার আদি নিদর্শনের নাম কি?
অথবা, বাংলাভাষা ও সাহিত্যের আদি নিদর্শন কোনটি?
উত্তরঃ বাংলা সাহিত্যের প্রাচীন নিদর্শন হলো- চর্যাপদ।

প্রশ্নঃ চর্যাপদ কোথায় পাওয়া যায়?
উত্তরঃ নেপালের রাজ দরবারে।

প্রশ্নঃ বাংলা ভাষার উদ্ভব হয়েছে কোন ভাষা থেকে?
অথবা, বাংলা ভাষা কোন মূল ভাষা থেকে উৎপত্তি লাভ করেছিল?
অথবা, বাংলাভাষা কোন আদি গোষ্ঠীর অন্তর্গত?
উত্তরঃ ইন্দো-ইউরোপীয় ভাষা।

প্রশ্নঃ বাংলাদেশের উপর দিয়ে কোন ভৌগোলিক রেখা অতিক্রম করেছে?
উত্তরঃ বাংলাদেশের উপর দিয়ে কর্কট ক্রান্তি ভৌগোলিক রেখা অতিক্রম করেছে।

তো এই ছিল স্বাধীন-বাংলাদেশের-অভ্যুদয়ের-ইতিহাস সংক্ষিপ্ত প্রশ্ন ও উত্তর । আপনি যদি আর্টিকেলটি গুরুত্বপূর্ণ মনে করেন তাহলে অবশ্যই আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করবেন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button